নক্ষত্রের মেয়ে আর আমি

যাবো যাবো বলে নক্ষত্রের জলে স্নান সেরে নিল মেয়ে
অন্ধকার আকাশের কাছে সে পেয়েছে ঘর
তার গায়ে সূতো নেই , আছে এক আগুন পোশাক
তার যাওয়া বড়ো মায়াময় ময়াল সাপ নিয়ে বুকে
স্বপ্নগুলি সঙ্গিনী হতে চায় , সে একাই ঝড় তুলে চলে
জলে তার ছায়াচিঠি নেই ,সে এখন নক্ষত্রের মেয়ে
ঘুমন্ত পাতায় পাতায় তার নরম পাতা দুটি নাচে
শেষ নেই , শেষ নেই বলে শেষে সে হারিয়ে যায় নিজে
পাথর এসেছে আজ , বসেছে আমার পাশ ঘেঁষে
পা কেঁপে উঠেছে থর থর যতো তাকে আঁকড়াই জোরে
ফিসফিস করে বাতাস বলেছে কানে কানে
নেই নেই বৃষ্টি হারিয়ে গেছে নেই বৃষ্টি দেশে
মাটি ফেটে যায় উত্তাপের সীমাহীন ভাষায়
চুপ করে সহ্য করে যাই, আবার পাথর চাপা দিলে
শীতল তলে খুঁজে যাই তল আর হারিয়ে যাওয়া আমি
ঘাসের সমাধির গায়ে প্রেমিক প্রেমিকা ফুলহাত রাখে

মোমশিখা নিয়ে মনে মনে ডাকে এসো ভালোবাসা এসো

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About