ইকেবানা

হুস্ করে চলে গেছে ছেড়ে তার সুখী গৃহকোণ
মুঠোতে ছিল যার লক্ষকোটি ঠিকানা জানা
ধবধবে থান পড়ে,পুড়ে যাওয়া থুতনি ঝুলিয়ে
হাড়মাসে আছি মৃৎপাত্রে মৃতবৎ ইকেবানা।
প্রথম দিনের পর দুধ সাবু বাটিটার উপচে ওঠার
সাথী ছিল ডুবেথাকা একফানা কলা
আজ মুড়ি বাতাসার বোল মাড়িতে বাজিয়ে
একঘটি জল ঢেলে ভিজিয়েছি গলা।
পুজোতেও পাইনা প্রশ্রয়, বুজে আসে চোখ
ভাঙাচোরা কথাগুলি ভিড় করে জাগে
রোজ পেতে মুক্তির স্বাদ,রোজ মরি একবার
হাঁটু আশ্রিত কাঁধ ঠোকাঠুকি লাগে।
এমনকি যমেরও অরুচি এই হতভাগী প্রাণ
মানুষের প্রেম ছোঁবে? এ আশার আষাঢ়-শ্রাবণ
না না না সারাদিন শুধুই বারণ ওঠে বেজে
আয় ঘুম আয়,কাঁথা মুড়ি শুয়ে রেডি কতক্ষণ!
চৌপায়া গুণে যায় দাগা কাটা দিনলিপিখাতা

হুস্ করে নিয়ে যেতে আয় আমার বেহুঁশ বেঁচেথাকা।

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About