আগুনকে

ভেসে উঠে দুঃস্বপ্ন,হাহাকার গভীর শূণ্যতা পারাপার।
একা করে অগ্নিবাণে বিঁধেছো রাতুল ইচ্ছেবিন্দু আমার।
জীবন বসত চায় অক্ষর বিহীন গভীরতায় ইঙ্গিতে।
পুড়ে,পুড়ে পোড়ামুখি আমার এ সামান্যও রেখেছিস হেফাজতে।
সম্পর্ক জানি বিশ্বাসে সম্পর্ক জানি নিশ্বাসে পরিত্রাণ দেখাস আগুনে।
সম্পর্কের মধ্যকার তৃতীয় সেতু অশ্রুসজল স্যাতস্যাতে ফাগুনে।
অন্তর্গত আকাঙ্ক্ষার স্রোত শোক বিধ্বস্ত অবিরাম নোনাজল।
পাথরে,ধুলোঝড়ে,ঘাসে,যেভাবে জীবন ক্রমান্বয়ে হীনবল।
বেকারের দুইহাত, দুইপা যেভাবে ধীর,বিচ্ছেদ চেনায় রাষ্ট্র।
ভেন্টিলেটরের আগে তোর বিচিত্র হীরক যন্ত্রে প্রকাশিত ষড়যন্ত্র।
বাতাস যেভাবে উড়ে উদাসী সেভাবেই ইচ্ছা উড়ে শিকড়হীন।
বিচ্ছেদ ছিঁড়ে,ছিঁড়ে বেকার আদিম গাফিলতি'র তকমা নিয়ম রহিত।
যাকে তুই সম্পূর্ণতা দেখিস সবটা শুধুই রঙিন বৈভব।

অতৃপ্ত তারাভরা আকাশ, জোছনা এইপথেই অবস অবসাদ প্রাণহীন অনুভব।

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About