পাগলি রে

এক দৌড়ে হবেই পার..কাঁঠালতলা পুকুরপাড়
পেরিয়ে আগে এগিয়ে গেলে বছর তিনের বড়
কেঁদেকেটেই একশেষ, তার গোঁসা ঘোরতর। 

পাগলি,
বেশ, ইচ্ছে হারাই হারবো
নাহয় তুইই এগিয়ে থাকলি।

চৈ দুপুরে সর্ষেক্ষেত, স্কুল পালালেও সইবে বেত
হারিয়ে সোনার নাকছাবিটা, ভেবেই সারা কন্যে
সাঁঝ আগে তো খুঁজেই দিলাম, হয়ে রে মেয়ে হন্যে।

পাগলি,
অবাক সে সব দিনের কথা
কই বা মনে রাখলি!

গায়ে হলুদ তত্বসাজ, দস্যি মেয়ে আজ সলাজ
তোর পিঁড়েখান ঘুরিয়ে নিতে পরাণ এলোমেলো
হোমের ধোঁয়ায় বোধহয় আমার চোখ ভরে জল এলো। 

পাগলি,
দ্বিরাগমন ফিরতি পথে
কোথায় ফিরে ডাকলি?

আজ যে এত যুগের পর, রূপো চুলে বাপের ঘর
হঠাৎ কেন পড়ল মনে পাতা ঝরার খেলায়! 
ছিলে কোথায়শুধোস না রে, এমন বিহান বেলায়।

পাগলি,
মনের কথা কওয়ার সময়

কাছে কোথায় থাকলি।

1 মন্তব্য(গুলি):

Soumitra Chakraborty বলেছেন...

মধুর আলাপন। ভালো লাগলো বন্ধু।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About