কাব্যগ্রন্থ পর্যালোচনা

'লোকটা' / অমিতাভ দাশ

অমিতাভ দাশের চতুর্থ কাব্য সংকলন ‘লোকটা’ প্রকাশিত হয়েছে ২০১৫’র কলকাতা বইমেলায় । কবি অমিতাভ এবং তার কবিতা এই আলোচকের কাছে অপরিচিত নয়, বরং বলা ভালো তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ একমনা রোদ প্রকাশিত হওয়ার অনেক আগে থেকেই তার কাব্যপ্রয়াসকে জানার সুযোগ হয়েছে ।  সেই সুবাদে আমার মনে হয়েছে ‘লোকটা’ গ্রন্থে অমিতাভর কবিতার প্রকরণ, বিন্যাস ও ভাবনার ক্ষেত্রে এক নতুনতর গতিপথে বাঁক নিতে চেয়েছে । আলোচ্য সংকলনের কবিতাগুলির পাঠ প্রতিক্রিয়া আমার এইরকমই ।

‘লোকটা’য় সংকলিত ৫৭টি কবিতা, প্রত্যেকটির ভিন্ন ভিন্ন শিরোনামও আছে । কেন্দ্রে কিন্তু একজনই – লোকটা , একাকী লোকটার পথচলা, তার বিষন্নতা, যন্ত্রণা, হৃদয়ের রক্তপাত, নিজেকে ভাঙা-গড়া কবির মায়াময় নির্মাণে উঠে এসেছে । এবং অন্বেষণ ভালোবাসার – কবে “জোছনাকে ম্লান করে সামনে এসে দাঁড়ায় ভালোবাসার নারী” । লোকটা বহু মানুষের প্রতিকৃতি । কবির নিজেরও । অসীমের স্বপ্ন নিয়ে লোকটা হেঁটে চলে, বলে “আমার পরনে কবিতার রঙিন পালক” ।

অমিতাভর প্রথম কাব্যগ্রন্থের কবি পরিচিতিতে পাঠক জেনেছিল ‘অমিতাভ কবিতা লেখেন মূলত নিজেকে খোঁজা আর প্রকাশের তাগিদে, আর চেতনার আলোদ্বীপ নির্মাণ অভিলাষে’ । আলোচ্য সংকলনেও একই নির্দেশ আছে । আসলে কবির এবং সংবেদনশীল কারোরই নিজেকে খোঁজার প্রক্রিয়া তো শেষ হবার নয় ! আর নিজেকে খোঁজার এই ধারাতেই কবির উপলব্ধি –
“কিন্তু আসলেই
লোকটা আটকে আছে এক বহুমুখী রাস্তার মোড়ে” । এখান থেকেই পারিপার্শ্ব “তাকে টেনে এনে লেখায় কবিতা !” আর “এভাবেই... কবিতায় ভর করেই চলে যায় মাপের বাইরে” ।

সংকলিত কবিতাগুলিতে এক স্নিগ্ধ মায়াবী ছোঁয়া আছে, যা পাঠককে মোহাবিষ্ট করবে । কবি দেখেন –

ঘুমঘুম চোখ নিয়ে কবিতারা
লোকটার চোখের পাতায় এঁকে যায়
বাংলার মাঠঘাট – ধানখড়-নদীময় রূপ” 
কিংবা যখন লেখেন –

’সেই সব ছেঁড়াখোঁড়া ভাবনাগুলি, দূরগামী সংকেত ছিল যারা !
সব সৃজন, সব দলাগলা ছবি, সব তুলট কাগজটুকরো
প্রজাপতির মত বিশ্বাসে
এক একটি কবিতা হয়েই আবার উড়ে গেল” (‘বেপরোয়া ভাংচুর’)। এবং কবির বিশ্বাস –

‘ইতিহাস যেমন তাকিয়ে থাকে
কবিদের দিকে
ঈশ্বরের দিকে নয়’(‘আয়নায় নিখোজ’), 
তখন পাঠকও কবিতাগুলির সঙ্গে জড়িয়ে যান । 

চিরন্তন ভালোবাসা, সহজিয়া আবেগ, আবেগের সততা, পরবাস্তবের মায়াবী চিত্রময়তা আর সৌন্দর্যবোধ সংকলিত কবিতাগুলির আকর্ষণবিন্দু । আমি এভাবেই কবিতাগুলিকে বুঝতে চেয়েছি ।

পরিপাটি মুদ্রন ও কবির স্বকৃত শোভন প্রচ্ছদে সংকলনটির প্রকাশক ‘ধানসিড়িটির তীরে’ প্রকাশনী, দাম একশ’ টাকা । বিশ্বাস, ‘লোকটা’ পাঠক সমাদৃত হবে ।


-- ফাল্গুনী মুখোপাধ্যায়

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About