বেইজমেন্ট

চোখের  আঙ্গিনায়  পায়চারিরত  নিশিনিদ ,
হৃদয়  তাকে  নির্বাসন  দিতে  চায়  অনাহূত  আখ্যায় ,
বৃষ্টিরা  এসে  জড়ো  হয়  উদার  উপেক্ষিত  চিলেকোঠায়,
অন্দরমহল  থেকে  ক্রমে  ক্রমে  উঠে  আসা  সাবলীল  বুদবুদ -
এবড়ো  খেবড়ো  মেঠো  পথে
অস্পৃশ্য  পাতকী   ধুসর  ঠোঁটের  স্পর্শে।

রাত্রির  নীল  বুকে   তোমার   চন্দ্র স্নাত  শরীরে
চোখ  মেলতে  পারিনি  বেবাক  বেভুলার  মত।
তোমার  গভীর  ঘুমের  অতলান্ত  নিশিথে-
হয়নি  কাঙ্খিত  নির্ঘুম  রাত্রি  যাপন।
ভোরের  আলোয়  নির্লিপ্ত  সহবাসে
গোবর ছড়ার  সকাল  হয়  -  রুদ্র পার্বতী।
ঝমঝমে  রোদে  পোড়া  মধ্যাহ্নে  জানালার  গারদে  চিবুক
ছুঁইয়ে  বিস্মৃত  বিবাগির  মত  কান্না  জমিয়েছ  রংধনুর  আস্তিনে।

অবসন্ন  অতৃপ্ত  শাড়ির  ভাঁজ  ক্রমে ক্রমে
মুছে  দেয়  আপোসহীন  লাল  টিপের  অস্তিত্ব।
অশুচি  আত্মা  কেঁদে  ফেরে  যান্ত্রিক  যন্ত্রনায়  - আবিষ্টনিবিষ্ট,

নিদহীন , বৃষ্টিহীন , উত্কট , উদ্ব্বেলিত , ক্ষমাহীন  বেইজমেন্টে।

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About