নিজের লাশের কবর দিয়েছি

শতাব্দীর পর শতাব্দী তাকিয়ে আছি ফেলে আসা পথের বাঁকে
বারোমাসি মেঘ সঙ্গী করে সাজাই একলা আকাশ
 
হাজার বছর স্থির হয়ে আছি এই মনের গভীরে
 
যেখানে ধারন করেছি তোমায় ;
 
অক্ষরহীন-শব্দহীন কথা গুলো পড়ে যাই বেলা অবেলায়
 
আশা জাগানিয়া দিন গুনে যাই, নেই কিছু হারানোর ভয়
 
এত আপন তবুও কেন হয়ে রও পর
 
এত কাছে তবু কেন দূর !!

হু হু করে বয়ে যাওয়া হাওয়ায় আজ বেগ পেয়েছে
 
নুয়ে নুয়ে যায় ঝাউ গাছ,
 
নির্বাক মুহূর্ত কথা বলতে মরিয়া
 
অস্থির মন তোমায় কেন ছুঁতে চায় !
 
আগুন জ্বালিয়ে চলে গেলে, সেই থেকে পুড়েই চলেছি
 
কিন্তু ছাই কি হয়েছো,অনিকেত !!

অপূর্ণ ইচ্ছে গুলো বুকের মাঝে হুটোপুটি খায়
 
শেষ প্রহরে লুটিয়ে অবিন্যস্ত স্বপ্নরা--হৃদয়ে রক্ত ক্ষরণ বাড়ায়
 
নিজের লাশের কবর দিয়েছি
 
দু হাত দিয়ে চেপে চেপে মাটি লেপ্টে দিয়েছি চারপাশ
 
প্রেম সেতো বেজায় ফাঁকি
 
ছুঁতে পারবেনা আর কখনো নিঃস্ব এই আমাকে ।

1 মন্তব্য(গুলি):

Drubotara বলেছেন...

অসাধারন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About