অনন্ত অপেক্ষা

কোন একদিন,আসতে হবে জেনেও
আসনি সারাবেলা।
আমি তখন ধূসর চিলেকোঠা অথবা পরিত্যক্ত দোফসলি জমি। চোখে রোদ নেই। মুখে তাপ নেই। অসাড় হাতে বারুদের গন্ধ নেই। এক নিস্পন্দ নিস্পলক নীরবতা। বাতাসে শূন্যতার প্রাণময় জয়ধ্বনি। চেনা বিকেল গুলির গা থেকে ঝরছে এক বুনোহাঁস রঙা কুয়াশা। সে কুয়াশার বুক ভেঙ্গে জন্ম নিচ্ছে ঝরাপাতার খরস্রোতা নদী।ক্রমশ যে নদীতীরের আলপথ বেয়ে নেমে আসে পালকের মত প্রাচীন এক ঘুম।
ঘুমের ওপারে আমি চলে যাই, আমি
সব ভুলে যাই,
চালচুলো-ভিটেমাটি-সুগন্ধি বকুলতলা......
তবু শুধু মাঝে মাঝে মনে পড়ে
কোন একদিন ,আসতে হবে জেনেও
আসনি সারাবেলা......

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About