আমার রবীন্দ্রনাথ

আমি গাই 'রূপে তোমায় ভোলাব না''
সে শোনে চুপ হয়ে,গাই আমি...
'জানি তোমার অজানা নাহি গো,
কী আছে আমার মনে'' --সে শোনে আরো মন দিয়ে...

আবেগের অতিচিহ্নিত স্বরলিপি ও সুর...
আমার পূর্ণতা ও অপূর্ণতা...
সুরবিহ্বলতায় তাকে ঘেরে,
এক একটি গান 
পিছনকে ছুঁড়ে ফেলে দেয়...
ভবিষ্যৎ ও আলো আবছা হলেও
ফোটে একটু একটু

এই প্রত্যাবর্ত প্রগতি,এই সমান্তরাল চলন
লক্ষ্য্ করে, হেসে হেসে আনন্দে
হারমোনিয়াম বাজিয়ে যান রবীন্দ্রনাথ...
ভাগ্যিস্!  না হলে যে চিরকালীন সামগ্রীর অভাবে...
অন্ধের মতো পথেঘাটে ঘুরতে হতো!

সময় থেমে দেখে 
নিয়তি ও পুরুষকারের গতিময়তা...
দুপুরের ছায়া অতিক্রম করে সাহস...
একসময় গান থেমে গেলে উচ্ছল পায়রার
মতো ছেলেমানুষি আনন্দে
ঐশ্বরিক মানুষটি আহ্বান জানান...

'চলো,ফুচকা খেয়ে আসি!"

1 মন্তব্য(গুলি):

lifelong বলেছেন...

Excellent

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About