রবীন্দ্রনাথের কাছে

কিছু হারিয়ে গেলে সারাদিন নাই হয়ে যায়
এই যে বয়স যায় ঘাড় উচুঁ করে বড় বড় মেঘ,ঝড়
পেছনের দরজা খুলে একা একটি চাবি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা
কতকিছু তালাবন্ধ থাকে,শৈশবের ইস্কুল
কারো গোপন হাত;দুষ্ট কষ্ট
বাবার মৃতদেহ,অবিচার

রবীন্দ্রনাথ আছেন।
তারঁ জোব্বা ও দাড়ি চোখের ধ্যান
আমাদের পাশের চেয়ারে বসে থাকে
রবীন্দ্রনাথের কাছে যাই সব হারানোর মুঠি নিয়ে...

একটি জারুল গাছের গল্প

তখন রবীন্দ্রনাথের মত রোদ উঠল
জারুল গাছ বলল,এইবার পড়ে ফেলব পাতা
পয়সার মত খেলছিল পাখি পাগল আকাশ
ছেলেরা মন নিয়ে মাঠের পাশে প্রেম চিঠি লিখছিল।
জারুল গাছ ফুল পড়তে পড়তে ঘর মুখস্থ করছিল
ওর সঙ্গীরা তখন জলের কাছে ঝুঁকে শহরের কথা ভাবে
কেউ জানতেও পারেনি ফুলেরা ঝরে গেছে ধুলোয়।
জীবনের হিসেব লিখে যায় কিছু ফুল কিছু পাতা
রবীন্দ্রনাথের মত রোদ ওঠে,পাখি পাগল আকাশে হাসির চিহ্ন
জারুল ফুলের শাখা কী যাতনা মাখে...

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About