যে শব্দস্রোতেও নিরুত্তাপ

বারংবার দ্বিধাহীন সহজ হেরে যেতে পেরেছি,তাই কাপুরুষ ভাবছিস ?
বল ঠিক তো ? পরাজয়ের মান্যতার আড়ালে, তোকেই সমতার
অবশিষ্টাংশে গাঁথা আর, নিজস্বতা বলতে পালক বিষন্নতা মরিয়া- শব্দমালার গৃহস্থালি।
সেই গোপনীয়তার চিকচিকে বাগান জয়ের গন্ধে ম ম করে.....
আমি মগ্নচেতনার ছলছল ধারণায়, আলোঅন্ধকারের শূন্যতায়, শূন্য আঁকি অবিরত....

তুই এইসব হয়ত কোনদিন জানতে অজানার গহনে বীজ পুঁতবি!
অসহনীয় সীমান্তে অনন্ত সময়কে বাধার কথা হাস্যকর বলবি!
অতীতের নিম ডালে মৌনতার চিহ্ন মুছতে নীলখামে
লেবু চায়ের নিমন্ত্রণ দিবি বিষন্নতা'র ধুলোরঙ মুছিয়ে!
তবুও সাধন সম্পূর্ণতার আড়ালে-
আমি কিন্তু শেষ পর্যন্ত হেরেই যেতে চাই।

উপেক্ষার টপকানো প্রাচীরে তোর জন্যেই থাক সমতা, আর
মধ্যরাতের প্রাচীনতর যোগফল । হিসেবের মানচিত্রে
আলোলাগা থেঁতলানো সিগ্ধতা থেকে মরে যাওয়া ইচ্ছেমতি!
এক মনখারাপের বেসুরো সঙ্গীত.....

তোর মুঠো মুঠো অজ্ঞাতনামা!আমার  সংগ্রহে আত্মঘাতী বিশ্বাস,
যা আমাকে বারংবার হারতে প্রলুব্ধ করেছে আত্মবলিদানের স্বপ্নসন্ধানে!
সময়েআর গতি ও বয়সকে শাসিয়ে কি বর্ণময় আমি হেরেছি...
চমত্কার! তোর স্বাদের থেকে পারকতা বেশি......
উপলব্ধির চিরন্তন কড়াই আর গন্ডাই.....

তোর ভালোথাকা সেতো কোন মিথ্যে নয়?তুইতো ভীষন ভাবে আছিস,
ভালোথাকার স্বপ্ন লেপটে দিয়ে- ভেজাভেজা মেঘে ।  শিশিরের-
বিন্দুর ধুসর আবাহনে.......
নিজেকে প্রকাশ না করে, উপেক্ষার মধ্যেও সংবর্ধনার টিপ্পনী-
চোরকাঁটা'র বেদনায় উপশম রোহিত স্বপ্নের সাহসিক লেনদেনে ।
আর আমি আজও এসব সহজ,সহজিয়ার অবগাহনে স্বাভাবিক হেরেছি,
হারের মিটমিটে অজুহাতে হাত না রেখে...

1 মন্তব্য(গুলি):

Tarun Sarkhel বলেছেন...

বাঃ চমৎকার কবিতা। পড়ে আনন্দ পেলাম।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About