আশ



কৃষ্ট-খ্রীস্ট অভিন্ন এই কথাবললেন কবিয়াল
 সেই সে কবেযখন মাঠের আল
শিশির ভিজেশালুক জবা,চামরমণি চাল
লাভ হয়নি কিছু
আবার আসেন আরেক কবিআর্তি ছিল স্বরে
হিন্দু মুসলমানতাঁর কলমে একই বৃন্তে কুসুম দুইখান ।
কিই বা হল তাতে ?
দাঙ্গা হানাহানি,মান ইজ্জত ধূলায় টানাটানি
বাদ পড়েনি সেদিন সকাল রাতে ।
এই তো আসল কথা
দারাশুকোর মৃত্যু হবে আওরঙ্গজেবের হাতে ।
সব কালেতে এই রকমটাই ঘটে ।
নাদির শাহ,তৈমুর লঙ্গএদের জীন ই বাঁচে ।
মরবে কবিয়াল
যুগে যুগে কালে কালে এই নিয়ম বহাল ।
এই তো ইতিহাস -
লক্ষ পুঁথি অজাতশত্রু করবে সর্বনাশ ।
তবুও কেমন অবাক মানি যখন বৃষ্টিমাসে
হাস্নুহানা মুখ নামিয়ে হাসে
           মাতাল সুবাতাসে ।
রামধনু তার রঙের নেশায় নেশালো মাঠপার
অবাক ভাবি , এ রঙ টুকু তার
দেখার সময় পেয়েছিল কি দানব কালাপাহাড় !
সৃষ্টি তবু  মুঠো মুঠো  রঙ ছড়িয়ে ধন্য   ,
কেউ নিল তা আঁজলা ভরেকেউ রইল বন্য 
কেউ পারে নি , পারবে না কেউএইটুকু থাক মনে
ধ্বংস করতে ভোরের আলো , জ্যোৎস্না বনে বনে ।
সুরের নেশাভালবাসাআছে আজও আছে !
ধ্বংসকারী  সে বেঁচে নেই -বিপুল সৃষ্টি মাঝে !

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About