বাস্তব

স্বপ্নেরা নিজস্ব পথে চলে
পান্তাভাতের ঘুমেও উঁকি দেয়
গতরাতে পাড়ার ক্লাবঘরের রঙিন টিভিতে দেখা
বালি অথবা মরিশসের সাগরতট, মধুচন্দ্রিমা

ভোরের আলো ফোটার আগেই
বাস্তব কড়া নাড়ে
পাশ ফেরার সময় নেই
একশো দিনের কাজের প্রাপ্য টাকাটুকু
হাতে পেলে
এই শেষ বোশেখে চালের দশটা টালি বদলাতে হবে,
পুরোনো নড়বড়ে তক্তপোশটাও সারানো দরকার
নাহলে সামনের বর্ষায় এ ঘরে টেঁকা যাবেনা
পাশে ঘুমিয়ে থাকা জীর্ণদেহ সহধর্মিনী
একটা দীর্ঘশ্বাস বেরিয়ে আসে

স্বপ্নটা ঋণী ক'রে গেল !

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About