অসফল সঙ্গমের ইতিকথা

আর তখন বুকের গভীরে- জমাট বাঁধা অন্ধকারে
জীর্ণ সাঁকোটি ভেঙে গেলে কুয়াশার ভারে
আমি দেখেছি, করুন মৃত্যুকে হাসতে কৌতুকে!
যা কিছু আলো ছিলো এই পৃথিবীর-
একদিন তাদের আমি ওইখানে দেখেছি,
যা কিছু সুগন্ধ জীবনের বোধকে শেখায়-
ওইখানে তার পাঠশালার দুয়ার দেখেছি আমি,
ওইখানে নদী বয়ে যায়, ঝর্নারা এসে সাগরে মেশে-
ওইখানে পাখিরা গান গায়, ওইখানে পাহাড়েরা হাসে,
ওইখানে রাত নেমে এলে চুপিসারে কান্নারা জমে-
ওইখানে ঘাসের ডগায় নিঃশব্দে মুগ্ধ শিশিরেরা নামে,
আহা্, কত জল-! জিওল কি বাঁচে তবু--!
তুলসীর মঞ্জরীতে প্রদীপের শিখার উত্তাপ
লাগে আচম্বিতে বুঝি কভু-!
কলমি, হেলেঞ্চার ডগায়- শিনশিনে হাওয়া বয়ে যায়,
ওইখানে তবু বুঝি ভালো-মন্দ, প্রেম-অপ্রেমের স্মৃতিরা লুকায়!

আমি ঘুম থেকে উঠে দেখি আজ
আমার মৃত্যুরা বসে- ঠিক ওইখানে,
অকাতর ঘৃণা নিয়ে - বিদ্রুপে, কৌতুকে !
অন্ধকারে হাতড়ে খুঁজি- তবু কার মুখ,
তবু কার হাতজোড়া ছোঁওয়ার আশায়
আমার হস্তেরা ক্ষমা মাগে-,
আর ছলছল চক্ষু গুঞ্জন তোলে-
নীরব বুকের যন্ত্রণায়-!
তিমির অতলে তলিয়ে যেতেযেতে
আমি বুঝি সে আকুল নির্বাক আর্তনাদ!
নিরাশার মুঠো খোলা হাতে দেখি বাঁধন ছিঁড়েছে হতাশ একতারাটি-
সম্পর্কগুলো অদৃশ্য হাতে কারা যেনো
মুছে দিয়ে যায় ক্রূর হাসিতে-!
আমার মৃত্যুর বেলায়- বুকের ভিতরে
আরেক মৃত্যু এসে- লিখে যায় আরেকটি
অসহায়, অসমাপ্ত, অসফল সঙ্গমের ইতিকথা-!!


0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About