আরশিনগর

আদর্শ সেলুনের আয়না বলে দিচ্ছে
কতটা ক্লান্ত তুমি,
কতখানি বুড়িয়ে গিয়েছ।
চারপাশে আলোর বুদবুদ, চারপাশে শব্দের মেহফিল;
উজ্জ্বল মুখের স্রোত পাক খাচ্ছে রাস্তায় রাস্তায়,
যুবক থাকার এই প্রাণান্ত কসরত
নিতান্তই ধ্বসে যাচ্ছে সেনসেক্সের মতো।

এবার নদীর কাছে চলো।
সে তোমার গুপ্তধন গচ্ছিত রেখেছে,
সে তোমার ক্ষতগুলি গচ্ছিত রেখেছে,
সে ক্ষতে কবিতা হয়ে ভোরের শিশির জমে আছে।

এবার গাছের কাছে চলো।
গহীন মায়ের মতো ছায়াময় কাঁঠালের গাছ,
সে ছায়ায় কতদিন অপেক্ষায় আছে
তোমার লাটাই, চাঁদিয়াল।
রঙীন মার্বেল হাতে তোমার অবাধ্য ছেলেবেলা।

আয়না তো শুধু অভিমানী  বলিরেখা ধরে,
আয়না তো শুধু চোখের কালির বৃত্ত ধরে,
সোনার কৌটোয় রাখা,
সে, তোমার প্রাণ ভোমরাটি,
কোনোদিন ধরতেই পারবে না।

1 মন্তব্য(গুলি):

PALASH KUMAR Pal বলেছেন...

বেশ লাগল।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About