শাব্দিক কান্না

এই পথ এই গ্রাম হাঁটেনি উৎসব
চোখে চোখে ছড়িয়ে কেবল ক্ষিধা
নরমেধ যজ্ঞ চলে পেটের হেঁশেলে
আহুতিতে লেখা গরীবের মুশবিদা।

শস্য নিয়েছে ছিনিয়ে আত্মীয় বন্ধু
মাটিও বন্ধ্যা হয়েছে, বুকে সন্তাপ।
ঘরের ভেতর ঘর গড়েছে ধর্মপিতা
সংস্কারে পিণ্ড সাজায় আমার পাপ।

লাশের গন্ধে ভাসে আগমনী সুর
সবুজ পুড়ে যায় নাগরিক অর্চনায়,
বুকে কত সঞ্চিত রসালো বিদ্বেষ
জন্মেছি পঙ্গু জন্মের আঙিনায়।

পূজোর ধূনচী জ্বেলে বসবে মণ্ডপ
ঈশ্বর গন্ধে খুন হবে অরণ্য আমার।
লাশের শহরে সংঘাতে মাতবে লাশ
পাণ্ডুলিপি খুলে কবি কাঁদবে আবার।

1 মন্তব্য(গুলি):

PALASH KUMAR Pal বলেছেন...

"পূজোর ধূনচী জ্বেলে বসবে মণ্ডপ
ঈশ্বর গন্ধে খুন হবে অরণ্য আমার"

ভাই, এটা হবেই রে...

আর কবি পাণ্ডুলিপি খুলে কাঁদবে... কান্না ছাড়া আর কী আছে!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About