ঘন্টা-মিনিট-সেকেন্ড

ঘড়ি বাবু সময়গোনে বসে দেওয়ালেতে
তিনটি কাঁটা চলতে থাকে দিনে এবং রাতে
সেকেন্ড কাঁটার সারাদিনে নেইযে কোনও বিরাম
মিনিট কাঁটা একমিনিটে একটি ঘরই পেরান
ঘন্টা কাঁটা মোটাসোটা চলেন অতি ধীরে
ঘুমভাঙে তার সবসময়ই একঘন্টা পরে
সেকেন্ড কাঁটার একদিন হল ভীষণ রাগ
এতএত ঘোরার পরেও কেউ করে না হিসাব
সময় সবাই গোণে দেখো, ঘন্টা মিনিট বলে
সেকেন্ড কাঁটা শুধুশুধুই গোলাকারে চলে
আজ থেকে আমি আর তো চলব না
এই না বলে সেকেন্ড কাঁটা বসল দিতে ধর্না
ঘন্টা মিনিট তখন এসে অনুরোধের সুরে
সেকেন্ডরই মান ভাঙায় হাত জোড় করে
কে বলেছে তোমার হিসাব কেউ রাখে না ভাই
অলিম্পিকের সব রেকর্ডেই তোমার নামটি চাই
একটু হেসে মিনিট বলেএকশ মিটার রেসে
যে আমার নামটি নেবে তার নামটি যাবে টেঁসে
ঘন্টা বলেতুই যদি ভাই সারাদিন ধরে
কাজ যদি না করিস তবে আমরা যাব মরে
খুশী মনে সেকেন্ড কাঁটা বলে ঠিক্ ঠিক্
তিনজনেতে মিলেই আমরা চলব টিক্ টিক্।

আগমনী


তাক দুমা দুম্-দুম্
লাগল পূজোর ধূম্।
শিশির ভেজা ঘাসে,
শিউলি ফুলের বাসে,
নীলাম্বরী বেশে,
মা যে আমার আসে।
 
শালুক ঢাকা পুকুর পাড়,
বালির চড়ায় কাশের ঝাড়।
নরম রোদ মেঘের কোলে,
ধানের শীষ হাওয়ায় দোলে।
বর্ষা ভরা নদীর জলে,
মন চলেছে পালটি তুলে।
অনেক দূরে সাগরপাড়ে
আজ যে আমার মনে পড়ে
শারদপ্রাতে মা যে আমার
প্রতীক্ষাতে আজও থাকে।
  

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About