ব্যোম ভোলে

বহুদিন বাদে আজ একা ফুটে পদ্ম
গেরুয়া আকাশ তাই দৈবপলোব্ধ
ঘুমঘোরে তাঁকে দেখি ভোর ভোর স্বপ্নে
রামদেব ডেকে ক'ন ভালো করে দম নে ।
ফুসফুসে জমে আছে কবেকার কালী ঝুল
ধরা ধামে বেঁচে থাকা কি যে ব্যয় সংকুল !
তার চেয়ে হাতে  ধর প্রাচীন এই পত্র
  শুখা এই সাহারায় একা জলসত্র
 ব্যোম ভোলে বলে যদি এক দম মারলে
 ড্রেড লক নেড়ে যান খোদ বব মার্লে

 হাটে মাঠে ঘাটে একাসনে জুটে শান্ত কিম্বা তেরিয়া,
 নবীন বা ধাড়ি ,ক্রুশ টিকি দাড়ী এবং রাস্তাফেরিয়া
 জেল খোলা সারে সারে প্রহরী কয়েদী
 কোণে কোণে দি থেকে বিদগ্ধা বনেদী
 সুশীতল হাওয়া বয়, ল্যাদ খায় সৈনিক
 প্রাচীন ওষধি টানে দেশী ,পাকি ,চৈনিক
 কালো নেই ,অনাবিল রংধনু ধোঁয়া
 যৌথ খামারে দুলে দুলে মারিজোয়া
 এই বলে হাতে দিয়ে দু পিস রিফার
ধোঁয়া হয়ে উড়ে যান নদীয়া কি পার
      
চৈতী পাঁচালী

স্যাটাস্যাট বয় বায়ু হুতাশ প্রবন
চৈত্র পাঁচালী কথা করহ শ্রবণ
কলিকাতা গ্রামে এক ভক্ত আবাল
লাঠি ঝ্যাঁটা খেত খালি ঘোর কলিকাল
কেউ ছোঁড়ে কালো ধোঁয়া কেউ কর্দম ও
আছোলা জীবন তার নিতম্ব সম
আয়না প্রশ্ন করে হে মূঢ় রমন
কতকাল এইরূপ কমোডে বমন
পরকীয়া স্বপ্ন দোষ বুকে প্রোজ্জ্বল
গ্যাসীয় অগ্নিশিখা এনালে অনল
গ্লামারাস হিরোইন বেপথু ব্লাউস
নেড়ে চেড়ে একশেষ তখত এ তাউস
পড়শীর জানলা ফ্রেমে নিকষিত হেম
দেহ পদ পল্লব ,হাজির খাদেম
অলীক কুনাট্ রঙ্গ প্রস্তাবিত পানু
প্যালিমনি কেস খেয়ে নির্বাসিত কানু
এভাবেই বৃথা দিন অরণ্যে রোদন
মনোদুঃখে ভজিলো সে কুমার মদন
তুমি মোর বেস্ট ফ্রেন্ড অগতির গতি
ছপ্পর ফুঁড়ে আজ আসুক যুবতী
আলোর ফুলকি আর পলকাটা সিন
ইঁদুরেরা পালে পাল একা হ্যামলিন
এই বলে আবাহন দেব কিউপিডে
চরম বিরহ গীতি হৃদয়ের রিডে
সহসা ডেস্কটপে শোনে দৈব বাণী
দুইবেলা গোমূত্র ফ্রম কাচ্চি ঘানি
এর সাথে মিশ্রণ বাছুর পূরীষ
ডোজে কিছু কমবেশি বিশ বা উনিশ
সেবন করিবে সদা পবিত্র মনে
পুজিবে আমার নাম প্রতি ধড়কনে
যে যেইখানে ছিল , মুন্নি বা সানি
পশিবে ট্যাঁকেতে তব নিশ্চিত জানি
শুনিয়া আশ্চর্য সবে করে কানাকানি
চোরা কবে শুনিয়াছে ধর্মের বাণী
সেই থেকে হাতে নিয়ে থালা ও গেলাস
মাঠেতে গরুর খোঁজে ভক্ত অভিলাষ
দুঃখ বিনা দক্ষতা আসে কি আয়াসে ?
অকথ্য চোরকাঁটা , চাঁট অবশেষে
বয়ে গেল গঙ্গায় কত জল বেনো
লভিল সে গ্ল্যাম নারী আইটেম হেন
তোমাদেরও যদি হয় চিত্ত উচাটন
ঐশী ফর্দ সেই কর আনয়ন

তোমাদের উপকারে প্রাইম চ্যানেলে
সে মদন প্রাশ ও আজ চৈত্রের সেলে
রোজ রোজ স্নান করে সহাস্য মুখে
এ পাঁচালী পড়ে নিয়ে দুদু তাম্বুকে
এবেলা এক আর অবেলা দু স্পুন
চেটে নিলে বুঝে যাবে কিবা গুনাগুন
এ পাঁচালী না মানলে মেলেচ্ছ গতি
জিরাফের সাথে তার অজাচারী রতি
পরলোক মেন গেটে রিটায়ার্ড হুরী
কিছুটি না করে শুধু দেবে সুড়সুড়ি
আগে ভাগে সাবধানী , সামাল সামাল
বাদ বাকি লিখে যাবে কালের রাখাল
ইহা বলি কি বোর্ডে উপচিয়ে ভাট
এবারে বিদায় চায় নিরেট এ আকাট






0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About