প্রজাপতির বিয়োগ কথা 

প্রজাপতির কথা ভাবছিলাম-- 
তার মাঝে কেউ যেন বিয়োগ ব্যথার কথা বলে উঠলো।
যথার্থ মন, তুমি ডালিমদানায় তোমার মুখ দেখতে পারো,
কিন্তু আয়নাও ঠিক ঠিক তোমায় দেখায় না জেনো--
বস্তুত সাজানো কাঁচের মূল্যে মূল্যায়ন ধরে রাখা যায় না। 

তোমাকে অভিশাপ দিলাম, শোক তাপের উষ্ণতায় আমি যে পরিপূর্ণ। 
তুমি তোমার মত নও--আয়না ধরে আছে অন্যজন,  
তাই বুঝি সাজ শয্যার এই পরিপাটি !
সারাংশের কতটুকু বাস্তবতা ধরা থাকে আমাদের হাতে ?
রাতের স্বপ্নগুলি যদি ঠিক ঠিক ধরে নিই--অনেকটা আয়ুর সময় প্রবাহে 
যদি জীবনটাকে খুলে রাখা যেত ! 

ধরি বাস্তবে তুমি প্রেম ধরে আছো, প্রেম মানে শরীর বিলাস, 
চিবুক ছুঁয়ে আছো, গভীরতার স্পর্শ খানিক যদিও পেলে,
তবুও ক্ষণকাল পরে দেখো, চকমকি ভাসে ডুবে গেছ তুমি,
সেখানে স্বপ্নাতুর দৃশ্যগুলি জীবন্ত হাত-পা নাড়ার মত 
অন্য এক বাসনা ঘর। 

বস্তুত মগ্নতায় ডুবে থাকা, 
শুরুর শূন্যতা  ভেঙ্গে রং জন্ম নেয়, পাতার সবুজে তোমার বিবসন,
যখন কিছুই ভাবনা নেই--স্খলন পুলক ছেড়ে তুমি বাতাসে ভাসছ। 
ভাসছ, ভাসছ, জীবনের আরও কিছুটা সময়, ভেসে গেল। 

বারবার একই কথা, আবাহন ও বিসর্জন হচ্ছে দেখো। 
ক্ষণ কারো ধরা নেই, তাই বারবার অন্বেষণ, এই খুঁজে ফেরা, 
ওমের আলাপে কিছু ভালবাসা আছে,
তাপ উত্তাপের মাঝে পলকপাত নেই--
তবু সমগ্র পৃথিবী, তুমি আকাশ হয়ে আছ,
বাস্তবে এক আকাশ পরমায়ুতে মিশে আছে আমাদের প্রবহমান সমষ্টি।  


1 মন্তব্য(গুলি):

PALASH KUMAR Pal বলেছেন...

যদি জীবনটাকে খুলে রাখা যেত!

সত্যই ভীষণ, ভীষণ ভালো হত।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About