অবশেষে এলে

কে যেন অদ্ভুৎ এক তরঙ্গ পাঠাচ্ছে পৃথিবীর দুরবর্তী প্রান্ত থেকে
চলতে চলতে থমকে দাঁড়িয়ে পড়ি সেই তরঙ্গের মূর্ছনায়,
মনের মননে একটু একটু করে জড়ো হচ্ছে ভালোবাসার
সুতীব্র আকাঙ্ক্ষা, পথের ধুলোয় পাচ্ছি অদ্ভুৎ এক সুগন্ধ
হয়তো মাটির ঘ্রাণ, হয়তো বা সেই তরঙ্গে মিশে থাকা
যত ভালোবাসা মিশে যাচ্ছে আকাশে বাতাসে।
দু-চারটে পথিক অবাক চোখে দেখছে উদ্ভ্রান্ত আমাকে
পথপার্শে শায়িত সারমেয়টি চকিতে তাকায়
ওর চোখেও কী এমন জাদু আছে যে ফিরে তাকাতেই হলো
বারেকের তরে, শুধু পথটাই যা নিশব্দে পড়ে আছে পায়ের তলায়।
সহসা দূর থেকে ভেসে আসে চেনাজানা সুরেলা কণ্ঠের আহ্বান
সচল পাদুটো নিমেষে স্থবির, ধুলো উড়িয়ে ছুটন্ত দুটি পায়ে
অদ্ভুৎ তরঙ্গটি যেন সরে সরে আসে আরও কাছে।
বুকের ভেতর দাপুটে ভালবাসার অস্থির ব্যাকুলতা ছাপিয়ে
উঠে আসছে চেনাজানা একটি মুখ আমার প্রিয়ার,
দূর থেকে ভেসে আসে উচ্ছ্বাসিত কণ্ঠ – ‘একটু দাঁড়াও।  





1 মন্তব্য(গুলি):

মিজান ভূইয়া বলেছেন...

দূর থেকে ভেসে আসে উচ্ছ্বাসিত
কণ্ঠ - ' একটু দাঁড়াও ' ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About