কাব্যগ্রন্থ পাঠ প্রতিক্রিয়া

‘অনন্ত পাথর সরিয়ে’ – সুরঙ্গমা ভট্টাচার্য

ছত্রিশটি কবিতা নিয়ে সুরঙ্গমা ভট্টাচার্যের কাব্যসংকলন ‘অনন্ত পাথর সরিয়ে’ হাতে পেলাম । প্রকাশ করেছে কলকাতার প্রকাশনা জগতে নবাগত ‘ঋতবাক’, এবারের কলকাতা বইমেলায় । এটি সুরঙ্গমার ৫ম কাব্য সংকলন । সংকলনের কবিতাগুলি পাঠের পর একটি মাত্র বাক্যে আমার পাঠপ্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে আমি বলবো – সুরঙ্গমা কবিতাগুলিতে নিজেকেই খুঁজতে চেয়েছেন ।
কখনো না কখনও কোন অবসন্ন মুহুর্তে নিজের চেতন মনের সামনা-সামনি আমাদের বসতেই হয় । কবি তাঁর মনের মুখোমুখি হয়েছেন । বলেছেনও সে’কথা –


"আত্মমুকুরে আত্মবিশ্লেষণ, সৌন্দর্য-সব,
সব ছাড়িয়ে নিজেকে খোঁজা
নিরন্তর
দুঘন্টার জন্য একলা গোটা দুপুরে
মুখোমুখি মন(‘ঘুঘুডাকা দুপুর কথা’)

সুরঙ্গমার কবিতায় বিষাদ আছে, আছে বিষন্নতাও । এবং তা থেকে কবির বিপন্নতাও । কবি জানিয়েছেন বিষাদ ও বিপন্নতার মধ্যে যে ফারাক ও মিল তাইই কবিতায় ধরে রাখার বিপন্নতা ।   আসলে  এমনই লিখেছেন কবি তাঁর কাব্যগ্রন্থের প্রচ্ছদলিপিতে । আসলে তা নয়, যেমন কবির সত্যোপলব্ধি  “লেখা আস্তর ছিড়ে ছুটে যায়, কাল লালে, তবুও সময়টা খুব অন্ধকার । আমি বিষন্নতায় ডুবে যাই” । অতয়েব পাঠক নিজেকেও আবিষ্কার করেন সুরঙ্গমার কবিতার পংক্তিত্র । সেও তো কবির মতই শূন্যতা বোধে আক্রান্ত ।  শূন্যতা বোধের বিষন্নতা থেকেই কবি লেখেন - 

‘প্রতিদিন রণ
প্রতিদিনই রণে ভঙ্গ
দিই আমি
হাঁটু মুড়ে বসি
সহস্র আলোকবর্ষ
তছনছ করে
এলাচগন্ধী আগুন
উড়তে উড়তে
অসংখ্য আকাঙ্খার
উন্মোচন করে
অযুত অভিমান
করজোড়ে মুষ্টিভিক্ষা নেয়

তবুও কবি আশ্বাস খুঁজেছেন । বলেন

‘শূন্যতা যা দেয়
তার কাছাকাছি
পৌছাতে পারে না কেউ

শূন্যতা বোধের বিষন্নতার কান্না থেকেই কবির প্রত্যয়ের অন্বেষণ । কবি লেখেন

জ্যোৎস্নাভেজা অক্ষৌহিণী লুন্ঠন
যখন ছিন্নভিন্ন করে দেয়
আশা নিরাশার দোলাচল
কান্না নয়,
নাভীমূল থেকে উঠে আসে প্রত্যয়’ (‘জবানবন্দী’)

আর তখনই হয়তো বা পাঠক নিজেকেও আবিষ্কার করেন কবির পঙক্তিমালার সঙ্গে

অনন্ত পাথর সরিয়ে
সমস্ত বিরহ এসো
অঞ্জলি দিই
রূপনারায়ণে


সুরঙ্গমার কবিতার উপকরণে দুর্বোধ্যতার দেওয়াল ঘেরা যাদুকরি শব্দের আস্ফালন নেই, আছে ‘আদর্শহীন শূন্যতা’র নষ্ট সময়ে আমাদের যাপন,অসহায়তা আর মনের আয়নায় আত্মনীরিক্ষণ । সুরঙ্গমার কবিতায় পাঠককে  কবিতার কাছে টানার রসদ আছে । কাব্যগ্রন্থটি পাঠক সমাদৃত হবে বলেই আমার বিশ্বাস ।

পুস্তক প্রকাশনা জগতে আনকোরা হলেও কাব্যগ্রন্থটি মুদ্রন পারিপাট্যে ঋতবাকএর বেশ যত্নশীল প্রকাশনা । এবারের বইমেলায় ঋতবাক অনেকগুলি নানান স্বাদের বই প্রকাশ করেছে । আমার সঙ্গত বিশ্বাস, ঋতবাক প্রকাশনা জগতে হারিয়ে যাবার জন্য আসেনি । হীরণ মিত্রর শোভন প্রচ্ছদ জ্যাকেটে মোড়া ছাপ্পান্ন পৃষ্ঠার বইটির মূল্য একশপঁচিশ টাকা । 

                                                                                          - ফাল্গুনী মুখোপাধ্যায়







1 মন্তব্য(গুলি):

Surangama Bhattacharjee বলেছেন...

অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা।আপনি আমাকে মহিমান্বিত করেছেন।আমি যা নই ই।"লেখা আস্তর ছিঁড়ে...ডুবে যাই"লাইন দুটি হিরণ দার লেখা।আমি উইদিন ইনভার্টেড কমার মধ্যে রেখেছি তাই।প্রণাম নেবেন।আমার কৃ্তজ্ঞতাও।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About