পটভূমিতে লেখা

যন্ত্রণা যদি তপস্যা হয় কিম্বা তপস্যার নাম যদি যন্ত্রণা -
কোন যন্ত্রনাই বিফলে যায় না নন্দিনী ;
লাঙ্গলের ফলায় ছিন্নভিন্ন শরীরে যে কর্ষিত জমি সেই তো সবুজের আবাহনী
ফসলের দামে সম্পূর্ণতাকে আলিঙ্গনে ;
যন্ত্রণা তার দেখেছো কি ?
দশ মাস দশ দিনের কষ্টই প্রাণের স্পন্দনে মায়ের কোল আলোকিত করে ;
প্রকৃতিকে ছুঁয়ে জাগুক যন্ত্রণা - একটা প্রচন্ডের কালবৈশাখী - প্রচন্ড ঝড়ের পরেই নতুন জীবনের শুরু-
আঘাতে আঘাতে জর্জরিত হয়েই বিপ্লব ;
যন্ত্রণাই শক্তিকে ধারণ করে নন্দিনী ;
উৎস থেকে উৎসাহ ছড়িয়ে পড়ে মৃত্যুঞ্জয়ী প্রবাহে ;
প্রবল পারাবারে ইচ্ছেরা ভাঁজে ভাঁজে উজান গাঙে ;
নন্দিত সুখ যে নরকের যন্ত্রণাকে অতিক্রম করেই পাওয়া যাবে ;
শুধু অপেক্ষার সহনশীলতা,
সময়ের সহ্য - ধৈর্য্য - আনুগত্য ,
ঈশ্বরের পরীক্ষা শেষ হলেই আগামী কথা বলে, বলবেই ;
রাতের আঁধার শেষেই দিন প্রগতিশীল ;
আরো আরো আঘাতে আঘাতে জাগে সুপ্তি ;
জেগে ওঠে প্রাণ সঞ্চার বিন্দুতে বিন্দুতে ;
বৃষ্টির সে ধারাপাত বিচ্ছুরণে ফুটবেই রঙিন পটচিত্রে
অন্ধকার কেটে যাবেই স্থির গন্তব্যের উদ্দেশ্যেউপসংহারে ;
যন্ত্রণা যদি তপস্বীর তপস্যা হয় -----
না, কোন যন্ত্রনাই বিফলের না  ।।।।

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About