আমের বোল চোখে পেরিয়ে যাচ্ছি পাঁচিল

আমাদের সমস্ত রাংতা-বিষাদ এইমাত্র বিকিয়ে গেল চৈত্র সেলে
সমস্ত দাবানল, দগ্ধ দুপুর তুলে নিচ্ছে এবার নতুন স্টক।
ক্যাসুয়াল ঘাম পরে একা একা আমরা বেরিয়ে পড়ছি
কয়েকটা আলাদা কালবৈশাখীর দিকে,
পুড়ে যাওয়া হালখাতার ছাই মেখে শিবশম্ভুর মত
সিমেন্ট উঠে যাওয়া কোনো লাল বারান্দায় বসে থাকাই ভবিতব্য হয়তো
এইসমস্ত ছায়াহীন গলিত পিচের রাস্তায়।
ছিঁটেফোঁটা জীবনটাকে নাগরদোলায় তুলে দিয়ে
সরে দাঁড়ানোই একটু আরাম যেন এই গুমোট বিকেলবেলায়।
অপেক্ষা করছি কখন শেষ হবে এই উতর-চড়াও
কখন ফিরতে পারবো নাচতে নাচতে নতুন ক্যালেন্ডার হাতে
আমাদের একান্ত স্নানঘরে,
যেখানে খুলে ফেলতে পারবো নানাধরনের মুখোশ
আর, শরীর বেয়ে গড়িয়ে নামবে একাকী নদীর শীতল স্রোত।


0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About