গদ্যকাব্য

এক

পাখিদের আমি ঈর্ষা করি। ওদের কোন রাষ্ট্র নেই, নেই সংবিধানের বালাই। পাখিদের কিতাব নেই, ধর্ম নিয়ে ভাববে কেন ওরা! আনন্দ খুঁটে খুঁটে ওরা দেয় জীবন পাড়ি।
ডানাহীন এক পাখির নাম লালন। তার কোন কিতাব ছিল না, ছিল কি? গানে গানে দেহাতি লালন হেঁটে চলে, আমি আজো দেখি। আমরা কবে লালন হব?

দুই

সাগরের উত্তাল ঢেউ বলেছিলো, 'রিসাইকেলে ফিরে ফিরে আসি। আমাকে পাবে খুঁজে অন্য কোন ঢেউয়ে।'
হারিয়ে যাব একদিন। প্রচ্ছায়ায় তবু ঘ্রাণ পেয়ে যাবে।

তিন

সেই কবে থেকে ঝুলে থাকা মাইলফলকে চোখ বুলিয়ে খুঁজে চলেছি পায়ের ছাপ ... .
অন্বেষণে অন্বেষণে বুড়ো বটগাছের শেকড় বিস্তৃতি, ঘ্রাণে ভেসে আসে অন্ধফকিরের হেঁয়ালী গানের অলীক।
টুকরো টুকরো হয়ে ক্বলব ছুঁয়ে যায় বিগব্যাং পূর্ব আজানের সুর; দৃষ্টিতে বিভ্রম, সত্য-মিথ্যে মিশে একাকার।



1 মন্তব্য(গুলি):

samarendra biswas বলেছেন...

" ডানাহীন এক পাখির নাম লালন। ... আমরা কবে লালন হব? "
ভালো লাগলো গদ্যকাব্যর টুকরোগুলো !

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About