আখর আকুতি

 

তোমাকে টেনে আনি উনমুক্ত স্বাধীনতায় ...
সে নির্মীয়মান ছন্দে-- মৃদু হেসে যতিচিহ্ন দিয়ে
কেমন বললে --
'বুঝি কতোটাই প্রয়োজনীয়...বর্ণমালা আর প্রেম!'

তখন আকাশও উল্লাসে বলে, -- '
প্রিয়া, তুমিও তাহলে কোর আমায় রচনা
তোমার বর্ণে...গানে...আনন্দে?'

ততক্ষণে --
আমার গ্রামোফোনে পিন আটকে তুমি শুধু ঘুরে চলেছো
ঘুরেই চলেছো, তাই কী দারুণ লাগে গো --
আমার বুনোশীষ, আমার বুনোশিস্ ...

অন্ধকার আরো গাঢ় হলে
তখন স্পষ্ট বুঝতে পারি তোমার চাওয়াগুলি
সাঁকো হয়ে গান শুধু গান শুধু গান...
শুধু গান আর আবছা অনুভবের আলো,
যেন ঋক, সাম, যজু, অথর্ব...এসবের পুনর্জন্ম
আদি নক্ষত্রের বিস্ফোরণে..

ঝাউবন দোলে ...
রাতটা আরো কোমল থেকে কোমলতর হয় বিস্তারে বিস্তারে --
না ঘুমিয়ে গড়ি প্রতিমা তখন...
সমান্তরাল উত্তরণে শিহরণে...
চুউউউপ মগ্নতায় চাঁদ !

সপ্তডিঙা পাল তোলে --
ফোয়ারায় হাজার প্রজাপতি...
ভোর, জানলার পর্দাগুলো আদরে টেনে বন্ধ করে বলে
''এবার ঘুমোও...এবার ঘুমাই?''


 এইখানে এসে স্তবকগুলো শেষ হয়েও শেষ
হতে চায় না!

ঘুমের ওষুধ আর সব কারফিউ অগ্রাহ্য করে
লিখে যায় অসামা্ন্য অপ্রত্যাশিত সংলাপ...

যেমন বীজ থেকে অদম্য অংকুর,
যেমন বেপরোয়া চুমু একের পর এক,
যেমন অতর্কিত প্রবেশ...নরমে!
তারসপ্তকের ওপার ছুঁয়ে বারবার
মধ্যসপ্তকের  নীচের সা তে এসে তৃপ্তি !

এমন হাওয়ারা ঘিরলো তোমার উপত্যকা,
তিস্তা ...
ফাল্গুনে হলুদ বনে বনে বনে,
তুমি হারাবে, হারাবে আবারও নাকছাবি...


এমনই যে রয়ে যায় দাবি..

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About