আসলে বাঁচার নাম 

অমাবস্যা অন্ধকার অকৃপণ ব্যাপ্ত রাত্রি ধরে 
কারো কোন প্রশ্ন নেই প্রতিদিন আলোর মৃত্যুতে, 
শব্দে আর স্পন্দনের সাযুজ্য মেলেনা, 
কবিতাই বলে ফেলি সেইসব দুর্বোধ্য দৈর্ঘকে
কোন এক অজানা আবেশে।

ভালবাসি বলে, সুগন্ধি আতর খুঁজি ;
না হলে সবার বুকে নিজস্ব মানুষ গন্ধ থাকে ।
ভালবাসা অজান্তেই দেবতার ভ্রুন জন্ম দেয়,
মৌতাত গোলাপ হয়ে ফোটে। অন্যথায় প্রেমিকের চোখে 
অজ্ঞতার নাম গন্ধ মুছে যেতে পারে 
সংযোগ যেখানে বদ্ধ ঘনিষ্ঠ পাপড়িতে,
সেইখানে দৃষ্টিভঙ্গীদৃষ্টি  বা পদ্ধতি লব্ধ নয় ;
স্বতঃস্ফূর্ত উষ্ণতার স্রোত ছন্দময় বয়ে যায় 
স্নেহাস্পদ প্রয়াস ও প্রবাহে ।

আসলে বাঁচার নামে লুকোচুরি খেলি একা একা
আমরা সবাই। কানামাছি হয়ে ভাবি পৃথিবীটা খুঁজছে আমায়;
অথচ নীরব সত্যি অন্ধকারে বেঁধে 
নিজে নিজে খুঁজে যাই স্বল্প সুত্রে দেখা 
বিশ্বাস বিস্বস্ত মুখ 
তারপর অকস্মাৎ বাঁধন সরিয়ে নিলে,
ধোঁয়াসে দৃষ্টির সামনে একাকিত্বে শব্দ তোলে শব্দহীন  
বুকের অসুখ ।




0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About