পোট্রেট ...

আমাকে আঁকবে বলে তুমি অসংখ্যবার জমা
বরফের উপর রোদটাকে হুকে আটকে দিয়ে
কম্পোজিশান মেলাও। রংটং মিলে গেলে
ইজেল টানিয়ে আমাকেও কপট বলো,
বসে থাকো,স্টিল-একদম নড়বেনা...
তোমার ব্রাউন সার্টের ডান কোনে রক্তের
সময় শুকিয়ে যায়।
দুরাগত প্রার্থনার মত সুরছন্দে চলে যায়
ঝিকিঝিক উত্তরের ট্রেন।
লক্ষ ও করোনা আজকাল চিহ্নিত মানুষ।
ফ্লাইং সসারেরা উড়তে শুরু করেছে পৃথিবীর দিকে।
সাদা পতাকা বোঝাই ওয়াগন ছুটে চলে যায়
যাদুঘর ইনস্টিটিউটে!
তোমার তুলি আর আমি অবাক তোমাকে
দেখি, মৃদু কুঞ্চিত আলোর ললাটে বোবা
নক্ষত্রের গান,অলৌকিক সিম্ফনীর ঐশ্বরিক
উপস্হিতি। রোদ সেলাই করছে পাখিদের ঠোঁট।
বন উপবনেরা ভরে ওঠে পৌরানিক
কিশলয় স্নেহে। ভুলে যাই সূর্যের তলায়
মৃত্যুগুলো অনড় দাড়িয়ে আছে পাহারায়।
জংলি অর্কিডের রঙ মেখে উড়তে শুরু করে
প্রজাপতির ফসিলগুলো আর
আমাদের পায়ের তলায় আটকে আছে
একটি জমাট সমুদ্র।


0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About