স্মৃতিরেখা

আকাশ তখনো হয়নিতো  লাল সূর্য পড়েনি ঢলে,
গাছের পাতায় শিরশিরানি বইছে দখিন বায়-
শীতের হাওয়ার নেইক নাচন  ঠাণ্ডা যায়নি চলে,
একটি  কি দুটি পাখী আকাশেতে ফিরছে কেউ বাসায়।

আমারও হাতে কাজ ছিল নাতো কিছুটা সময় ফাঁকা,
ছাদের ফুলের বাগানে একাই চলেছে টহলদারী,
একটু সময় চুপচাপ শুধু নিজেকে নিয়েই থাকা,
ঘরের মানুষ নেই কাছকাছি ফাঁকাই রয়েছে বাড়ী।  

টবের গাছেরা ডাকছে আমাকেআমার কাছেতে এস,
দেখ দেখ কত ফুল ফুটিয়েছি তোমার জন্য সবই,
একটুখানি আদর চাই যে একটু তো ভাল বেসো
কবিতা নাহয় নাই বা লিখলে নাই বা হলেই কবি।  

হঠা একটি গোলাপের দিকে আটকে গেল নজর
একটি রঙ্গীন ছোট প্রজাপতি খেলা করে তার বুকে ,
যেতে তো হবেই তার কাছে তবু চলবে না কোন ওজর,
আধো নিমীলিত চোখের আদরে হাসে সুখী সুখী মুখে ।

মন ভেসে গেল অনেক পিছনে ফেলে আসা কোন যুগে ,
বুকেতে আমার ছোট্ট সে এক প্রজাপতি ছিল শুয়ে,
জানিনাতো আজ সে আছে কোথায় হয়তো আপন সুখে ,
আজও তবু কোনো অলস সময়ে স্মৃতিরেখা যায় ছুঁয়ে ।


1 মন্তব্য(গুলি):

Pradip Kumar Biswas বলেছেন...

খুব ভালো অনুভূতি দুটি চিন্তাধারার এবং লেখন শৈলীর সংমিশ্রণ আছে কবিতাটিতে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About