হে অনিঃশেষ

শ্রদ্ধার আসন রেখে চারপাশে হোম আগুনের তাপে ক্রমাগত ধোঁয়ার কুণ্ডলিতে
 নিঃশ্বাসে বড় কষ্ট ... রেখো না ... সাধারণ মানুষ ... মৃত্যু দেখো,না-হয় বেঁচে বর্তে
 থাকা সুদূরতম হে অনিঃশেষ ।
হে অনিঃশেষ, না-সুচাগ্র মেদিনীর এক চিলতে টব ... অপত্য স্নেহ ...অবিবেচক ...
চারাকে যত্ন না দিতে পারা ...বিষাদের কালো মেঘ ... এক ফোঁটা বৃষ্টি দেয়নি
স্বস্তি কোনোদিন ...হয়তো কোনোকালে ।
কবেকার বর্জ্য পদার্থ ... সারাঘরময় স্প্রে দিয়ে যায় ...অপ্রত্যক্ষ অভিশাপে জারিত
 মায়াবী সকল নিকট পরিজন,দ্বিধাভুক্ত হে অনিঃশেষ ... মুক্ত করো জ্যা
এই শেকলবোধ ।
শ্রদ্ধার আসন যেন কণ্টকিত ...বিদ্ধ করে ... অশ্রু ভেজে না ...বুকের ভেতর
 এক ক্ষত দুমড়ে মুচড়ে এক তৃষ্ণার্ত টিন ... তার ভেতরে বাতাস নেই ...
নিঃশ্বাস নেই ...সংকোচে মরচে ধরা পড়ে থাকা এককোণ ...
হে অনিঃশেষ নিঃসংশয় করো ...
হে অনিঃশেষ এটুকুই প্রার্থনা অবিরল ।


0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About