একি সাজে এলে

মহারাজ
মল্লিকা বোলানো কেমন সব বালি বালি রোদক্ষণিক

সমুদ্রের দুঃখীবান্ধব ব্যথায় ভাস্কর্যে আনন্দে ভর দিয়ে
রোগাপুষ্পের আত্মীয় পরগণায় ঝমঝম শ্লোক

পাখনায় সৌন্দর্যে রিক্তসিক্ত মহর্ষির উষ্ণতায়
যে জলঝোরাটি মহোৎসব তাঁরই নাম মহারাজ

রাজাধিরাজ কবি

একি সাজে এলে

থামিয়ে দিলুম এক মিনিটের জন্য সেই অসামান্যটি
শ্বাস নিয়ে দ্যাখো কান্তারপুরীর প্রাসাদকন্যা
সহজ গান্ধারের আংশিক তৃষ্ণায় অভুক্ত পিপাসা
নদী ডুবছে
চাতক ডুবছে
ডুবছে নথিসমেত ডুবুরিগাছ  

আধিপত্য খুলে যাচ্ছে পালতোলা জীবনের নৌকোনাভি পুরাণ হে তোমার ভোর
ভোরের চাইতেও অনেক বেশি টগবগিয়ে নিরীশ্বর খেলছে তোমার নীহারিকা


হৃদয়পুরমাঝে

অযুতশুভ্র
অপারদিনের আনন্দছই
স্নাত হতে চেয়েছি
চেয়েছি ঢের তোমার উত্তরাধিকার
একদিন আমাকে ক্ষয় দেবে
ঝরাবৃক্ষ যেমন দ্যায় আগুনব্যাথিত দাবানলের বৈঠকখানা

বেশ তো
তবু চল না একবার  অই মুখবন্ধে যাই লতাপাতার শ্রীরাধিকায়
সংক্রামিত হই অসভ্যবারুদ রোগে
অই চন্দ্রবংশের কোলাহল চেটেপুটে একবার মেখে আসি

সাবেক জ্যোৎস্নার স্তনপাঁচালি

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About