অপহরণ

সারাদিনের প্রত্যেকটি প্রহরে
প্রত্যেকটি পলে অনুপলে
সরল জটিল জিগজ্যাগ পথে
প্রত্যেকটি শ্বাস প্রশ্বাসের সম্পূর্ণ প্রকৃয়াকরণে
শব্দে ও নিঃশব্দে উচ্চারিত হয়েছে
হতে হতে এই মহাজ্যোতিষ্কলোকে কোথাও একটু
না দেখা একটা বিন্দুর মত জেগেছিল অর্জনের অধিকার

তারপর কিছু প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঘটল
কিছু কৃত্রিম হাত সৃষ্টি হলো অবিশ্বাসের
সেই অবিশ্বাস বিবেকের জার্সি গায়ে ঢুকে পড়ল ভয়ের ঘূর্ণিতে 
অর্জনের চওড়া বুকে চোরের আঘাত হানল
আইনের কালো হাতকড়া   আর
খড়ির গণ্ডির মধ্যে সোনার কাঠির স্পর্শে তুমি বিনিয়োগে

পল অনুপল এখন তাদের আপন শবদেহের চতুর্দিকে
দিন নেই ,রাত্রি নেই
শূন্যতাও তার আপন পরিচয় খুঁজে হয়রান


শরশয্যা

দরজা জানলা বন্ধ ,চোখ বন্ধ , বইএর পাতাও
অনেক দূর দিয়ে কোনো ফেরিওয়ালা চলে যাচ্ছে বাতাসে কম্পন তুলে
হয়তো অতি প্রয়োজনীয় কোনো পন্য
সে বিলিয়ে যাচ্ছে পাড়ায় পাড়ায়
বুদ্ধিমান লোকেরা টপাটপ তুলে রাখছে আপন আপন ঘরে
আমার ঘরের দরজা জানলা বন্ধ

ফেরিওয়ালার রাস্তা কি অনেক দূরে
নাকি আমার চেনা রাস্তাগুলো ,যেগুলো কাছেই ছিলো ,আজ ঘুরতে গেছে
আমার নিজের তৈরি করা রাস্তাগুলোকেও
অন্য লোকেরা তাদের পা দিয়ে দলতে দলতে
শীলমোহর রাবারস্ট্যাম্প লাগিয়ে তাদের নিজের করে নিচ্ছে

চিলেকোঠার পাখিরা
আরো উঁচু উঁচু চিলেকোঠার সন্ধানে আমার অজান্তে
অথচ ঘর বন্দী আমার কাছে অজানা বলে কিছু থাকে না
দেওয়াল তার কান দিয়ে শুনে তার মুখ দিয়ে বলে ফিসফিস
আমার কষ্ট হয় ,কষ্ট থেকে তাপ সৃষ্টি হয়
তাতে পুড়ে ছাই হয়  অলিখিত পাণ্ডুলিপি সব

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About