রূপকথা

আস্তে,,মেয়ে জেগে
এতো রাত অব্দি!
,রাত হয়েছে,খেয়াল আছে তাহলে!
পাড়া কেমন নিঃঝুম,,কুকুরগুলো পিছন পিছন আসছিলো
চোর বা মাতাল ঠাউরায়,তা তুমি তো আর চোর নও
জানি,মাতাল
তালে তো এক্কেরে ঠিক
চোর হতে বুকের পাটা লাগে রাণী  ,
সে আর বলতে,মাতাল হতে দুঃখু লাগে শুধু
আমি মাতাল হই না তো রাণী, মাতাল হতে না চাইলে কেউ মাতাল হয় না
মরণ!!হাত পা ধুয়ে গিলে উদ্ধার করা হোক আমাকে
হলুদবর্ণ  আলো। থালা ভরা সাদা ভাত। লাল আলুর দম।
অদ্ভুত ,,,নির্বাক,,,,মুখ নাড়ার শব্দ 
খাটে এক শিশু,,,অপলকখোলা জানলা দিয়ে জোছনা দেখছে ঘুম আসছে বুঝি
আকাশ ভরা তারা নির্ঘুম,
রাণী ,কথা ছিলো
কাল শুনবো
শিশুটি ঘুমালো,,
মায়াবী রাত নীল রাতবাতি বাইরে জোছনা
রূপকথার দেশ
পা ভাঁজ করে বসে খাটে রাণী তেলাল মুখে ক্লান্তি
ভালোবাসো রাণী এখনো আমাকে?
আদিখ্যেতা 
কেমন রাজকন্যের মতো মেয়ে তোমার রাণী  
,আমার একার ?রাজামশায়ের নয় বুঝি??
গলায় দলা পাকালো কিছু ছিঁড়ে টুকরো টুকরো করে গঙ্গায় ভাসিয়ে দেওয়া 
বরখাস্তর চিঠিটা চোখে জ্বালা ধরালো
ভিখিরি রাজা তোমার, রাণী 
তাহলে আমি দুয়োরাণী
রাত গভীর হয়।
রপকথারা ঘুমায়।

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About