চল পদব্রজে

যখন সব রাস্তা রুদ্ধ, রুদ্ধ রেস্তোরাঁ, সুহৃদের দ্বার
তখন সারা সোশাল নেট ওয়ার্কস জুড়ে ওড়ে প্রতিবাদের উন্মুক্ত অর্ন্তবাস

তখনই ঠাণ্ডা উপাসনালয়ে পেতে দেই শুকনো কাঁথা, স্তূপাকৃতি রেশমের স্বাদ
মাঝে মাঝে অদ্ভুত আহবানযেন অস্তির অলৌকিক আজান

প্রথমে থাকে কন্ঠস্বরে ভাষার দ্যোতনা
তারপরএকটি স্তব্ধতা থেকে অপর একটি স্তব্ধতা

উঠে আসে বন্য বিপর্যস্ত চুলের ছোঁয়া
অবশ্য জেগে থাকে কিছু নিষ্প্রভ শিরা উপশিরা

সেই প্রতিবাদের মাঝেও যেন উঁকি মারে কারা
দেখে চিকন মসৃন মহিলার ত্বকের মহিমা

তবু আশা রাখি, সোনালি বালির তীরে বসে থাকবে
নিশ্চই   নক্ষত্র একজোড়া
যার আলোয় জন্ম নেবে কবিতার আভাস লাগা কয়েকটি নক্ষত্রপঙক্তি -
" প্রতিবাদ মানে পা'য়ে  পা'য়ে হাঁটা"......

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

About