স্বপ্ননীল রুদ্র

স্থিতি

হাতে এখনও লেগে রয়েছে প্রথম প্রেমের মতন সুরভি

তল্পিতল্পা গুটিয়ে জল-সংসার কোথায় চলে গেছে কে জানে !
বেরিয়ে পড়ে ক্রমশ শুষ্ক হওয়া বালির প্রাবল্য নদী জুড়ে-
কেটে নেওয়া বিক্ষিপ্ত কাশের ঝোপে মরারঙ আলোকিত করে
আনাগোনা করে ঈর্ষণীয় পাখি; তাদের ডিঙিয়ে পুবদিকে
কারা তুলেছে অস্থায়ী চালাঘর? অগভীর পাতকুয়োর পাশে
মাটি লাগিয়ে অ্যালুমিনিয়ামের থালা মাজে লাজুক বধূটি,
পাশে ভাঙা টমটম গাড়ি টানে আমার বিলুপ্ত ছেলেবেলা...

চারপাশে জৈবসারের ক্ষেত;ফুলকপি ও শালগমের গাল থেকে
শিশির মুছিয়ে রোদ হেঁটে যাচ্ছে পা টিপে টিপে পালংবনে;
জমা করে রাখা নিড়ানো আগাছা লাফ দিয়ে পার হয়ে রশ্মি
দেশি ধনিয়ার ক্ষেতে বসে পা ছড়িয়ে। ঝাঁঝালো গন্ধ ছড়ানো
হাওয়ায় উড়ে আসে পোকারা, ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র রঙিন বলের মতো-

আঁটি বেঁধে দু'হাতে দোলাই সুগন্ধিত প্রাকৃতিক বিজ্ঞাপন
হাতে আজও নাছোড় রয়েছে তার প্রথম প্রেমের মতো স্থিতি...




কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন