সেলিনা জাহান

প্রশ্নোত্তর

(উৎসর্গ: শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা রুমীকে

ছায়া, তুমি কার?
মৌন আমি, আমার নির্লিপ্ততা আধিক তীব্র করে
পৌরুষদীপ্ত রুমীর ভরাট কণ্ঠস্বর।

ছা....য়া.... তুমি কার?
বিস্ময়ে কুঁচকানো ভুরুতে তাকাই
হঠাৎ রুমীর চোখে।
তারপর কিছুটা কাব্যিকতায়...
পৃথিবীর বয়েস অবধি
কিংবা, তারও অধিককাল ধরে যে আমার,
আমি তার।

ওহো! হলো না
তোমার কাব্যরঙ হালকা করো ছায়া,
সহজ কথায় গাঢ় করো প্রশ্নোত্তর
যাতে শিশু থেকে বৃদ্ধ, মূক থেকে সবাক
প্রতিটি মানুষ একবাক্যে বুঝে নেয় তোমার ভাষ্য।

ধরো, বাংলাদেশের আকাশসীমার
সর্ব্বোচ্চ মঞ্চে দাঁড়িয়ে তুমি,
সাড়ে সাত কোটি জোড়া চোখ
নিরাক দৃষ্টি শূন্যে তুলে
তোমার প্রশ্নোত্তরের গভীর প্রতীক্ষায়......
ছায়া, তুমি কার?
আমি... তোমার ছায়া,
আমি রুমীর ছায়া
না!...হলো না ছায়া...হলো না
সঠিক করে মনের কথাটি
মনের মতো গুছিয়ে বলো।
ছায়া, তুমি কার!

দুকূল ছাপানো রুমীর চোখে মেঘনা নদীর ঢেউ
তার সবটুকু জল তুলে নিয়ে হাতের মুঠোয়
দৃঢ় প্রত্যয়ে,
আকাশ বাতাস আর সাড়ে সাত কোটি হৃদয় কাঁপিয়ে বলি
রুমী.......
আমি তোমার বাংলাদেশের ছায়া!

অতঃপর নিবিড় প্রশান্তিতে শান্ত হয় সে,
আর আমার বুকের স্পন্দন শুষে নিয়ে বুকের সূর্যতাপে
আরো একবার জেনে নেয় রুমী
আমি তার নিখাদ সবুজ বাংলাদেশের ছায়া।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন