সৌগত রাণা

 জাদুর সুখ

আজকাল আমার ধুলোর শহরে,
এক দল লোক ঝোলা করে 
জাদুর সুখ নিয়ে ঘোরে... !

খুঁজে খুঁজে চকচকে তরুন গুলোকে 
বানায় ক্ষরিদ্দার,
সেই কেনা সুখে ভাসতে ভাসতে 
শহরের যুবারা হয় বৃত্ত বন্দি... !

প্রতিদিনের চলার পথে হাপিত্যেসের জীবন,
কালো ধোয়াসা যে সাম্রাজ্য অহংকার,
সব, সব মিলে সেই তরুনের বুকে 
বিষের এক অমৃত সুখ ঢেলে দেয়... !

আহ, কি শান্তি...
আরে, আরে পশুর দল,
যদি সেই সুখ বিষ তোর আদরের সোনাই খায় ?
তবেও কি কমবে না তোদের এই সাম্রাজ্য সুখ... ?

শোন হে, শোন তোমরা,
শহরে প্রতিদিন মিছিলের ভিড়ে 
উঁচুতম বেদিতে বসা মহানদের বলছি,
'তোদের এই জুয়াড়ি অর্থ দিয়ে কেনা 
এই সাম্রাজ্য কোমায় যাক,
তার বদলে হাসপাতালের ফিনাইলের 
গন্ধ থেকে ফিরুক আমার ভাই...' !

আমি দুহাত উঁচু করে বসে আছি,
সেই জাদুর সুখের মৃত্যু থেকে ভাই ফিরবে,
ফিরলে বুকে জড়িয়ে বলবো  ,
" হ্যারে ভাই,
আমার এই জড়ানো ভালোবাসার থেকেও কি খুব শক্তি তোর ওই জাদুর সুখে.....??

আমি দূর্দমনীয় হয়ে,
সজোরে থুতু দিচ্ছি সেই মহানদের,
যাদের সাম্রাজ্যে আজ 
মায়ের বুকের সুখ ছেড়ে যাদুর সুখে 
মরছে আমার ভাইয়েরা... ! 

আরে প্রিয় ভাই আমার,
আমি ভালবাসায় বাঁচতে শিখেছি,
কোন ধোয়াসা প্রহেলিকায় নয়.. ! 

পৃথিবীতে মায়ার চাইতে বড় নেশা আর নেই,
সে যতো বড় জাদুর ঝুলি হোক না কেন,
কৃত্তিমতায় মানুষ বাঁচে না প্রিয় ভাই আমার ! 
বুকে আমায় একবার জড়িয়ে দেখ ভাই,
শুন্য এ বুক পূর্ন করে রেখেছি ভালবাসায়,
তোকে মুঠো মুঠো মাখবো বলে...


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন