গোপেশ দে

 নির্বাসন


বুকের ভিতরে এক্রোপালিশের বীজ নীল নির্বাসন দেয় কেটে যাওয়া ক্ষতর আঘাতে

আঘাতে আঘাতে নক্ষত্র গুলোকে টেনে নিতে ইচ্ছে করে কব্জিতে

ধুলো মেখে অরণ্য প্রান্তরে প্রান্তিক দীর্ঘশ্বাসে নগ্ন সরলরেখায় সমীকরণ হয়ে যেতে যেতে

কেউ বসে অঙ্ক কষুক কলাপাতায় বিশ্বাসী অক্ষরে।

চেহারার জমে আছে অভাজনের বলিরেখা আর সারমেয় হয়ে আছি কিছু শুয়োরের কাছে যারা বোঝে না নক্ষত্র কি জিনিস, মানুষ কাকে বলে? মিথ্যে আর রাক্ষসের পেটে গিলে চলে কুখাদ্য মুখোশটা খাসা ভালোমানুষির।

এই সব শুয়োর থেকে দূরে নিজের এক্রোপলিশের বীজানু পালন করে নীল নির্বাসনে যাই নক্ষত্রের গন্ধমাখা নাভিশ্বাসে।

 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন