জয়া ঘোষ

 আয়োজন


মঙ্গলমৈত্রী দিয়েছো, নতজানু শিয়রে থাকে।

ধরণীর ধূলিপথ মধুময় হোক।

পাকদণ্ডি পথ হাঁটা পায়ে বহুদূর।

অস্তগামী সূর্যকে ডেকে তোলা বাকি।

আলো ছিলো। আলো আছে,  থাকবে।

ছায়াপথ। অনুসারী। লুটিয়ে কাঁদে কিছু ব্যথাচূর্ণ।

কায়ায় কায়ায় কাঙাল উদ্বাস্তু। অযাচিত অতিথি।

 

তরঙ্গে  ঘর ভাঙার ক্ষুদ্র আয়োজন।

ডানায় চুঁইয়ে পড়তে চেয়ে মুক্তির আনন্দ চিৎকার । দু একটি খড়কুটোয় মুর্খ শোকের ছায়া।

ব্রহ্মতালু থেকে কুলকুন্ডলিনী জড়িয়ে আলোলতা।  তবুও এক বিন্দু আলোর চিহ্ন নেই।

আয়োজন নিস্ফল। পাকদণ্ডি পথ বেয়ে আবার একটা শোকের ঘর। ভাবতেই কেঁদে ওঠে কয়েক জন্মের মাটির দালান।

 

আট পেয়ে পালকিতে রব ওঠে...

উড়োখই ছড়িয়ে থাকে জনপথ থেকে জলপথে ...।

 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন