অনিমেষ সিংহ

 বাক্ স্বাধীনতা


গনতন্ত্র দেখছি কেবল, কয়েকদিনের ভোটে;

আর যা আছে, এপাড় ওপাড় রাত্রি দিনে ঘঠে,

মেঘকালো সব রক্তপ্লাবন, গনতন্ত্রের ধোঁয়া।

তাও তো ছাই ধরতে গেলেই, যায়না তাকে ছোঁয়া।

 

হাজারটা বার মরব না তো, একটা জীবন বাঁচি।

তাকেই নিয়ে ছাইপাঁশ সব কোদাল দিয়ে চাঁছি।

বুলেট দিবি? একটাই বুক, একটা বারুদ ঢের।

রাষ্ট্র পোষে সব মাফিয়া, বলব আমি ফের।

 

জুয়ার আসর আইন করে ধরিয়ে দিল দেশে,

ভেজাল খাদ্য শিশুর মুখে পড়ল অবশেষে।

মদের গেলাস সস্তা করে ওষুধ হলো চড়া,

বেড খালি নেই হাসপাতালে রাস্তাঘাটে মড়া।

 

বলবি কথা! আইন করে, লাগাম দিলো মুখে।

ধোঁয়ায় ভরা আকাশখানি ঘুমায় শিশুর বুকে।

বাজার জুড়ে অগ্নিমূল্য  কৃষক তবু শেষ!

রাষ্ট্র পোষে মাফিয়া আর মাফিয়া পোষে দেশ।

সত্যি কথা বললে পরে রাষ্ট্রনেতার কাটে।

সরকারটা বিক্রি হয় শুক্রবারের হাটে।

মন্ত্রী নেতা বিকোয় কতো, তুলসী তবু ধোওয়া!

সুদিনগুলো উড়ছে কেবল, যায় না তাকে ছোঁয়া।

 

দিনরাত্রি মাথার উপর বিজ্ঞাপনের গেরো!

পেট ভরলে মন ভরে না চাইছে মানুষ আরও।

রাষ্ট্র জানে সুড়সুড়িটা, বণিক জানে গান,

পেটের পরে আরেকটা পেট বিজ্ঞাপনের দান।

 

আমরাত সব ছুটেই মরি, কিনতে হবে মই;

দেশটা কখন লুঠ হয়ে যায়, দেখার সময় কই!

শিক্ষা গেলো চুলোয় এবং শূন্যপদে বান।

আমার সাথে তোমার লড়াই, রাষ্ট্র হনুমান!

 

আজকে তারা আমার ঘরে আগুন হয়ে ঝরে,

তোমার ঘরও লুট করবে উন্নয়নের ভোরে।

আমরা যদি নিজের সাথে যুদ্ধে হারাই প্রাণ,

কে গাইবে আমার দেশে, পলিমাটির গান!

 

 

©অনিমেষ সিংহ

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন