ওয়াহিদ জালাল

 তার নিঃশ্বাস নির্দয়


অসংখ্য ঝরা ফুলের উপর নিজেকে রেখে

একবারে মুক্ত হয়েছি প্রতীক্ষার যন্ত্রণা থেকে,

অন্ধকারকে এসে চাঁদ যখন প্রেম পরায়

অশ্বের সওয়ারির মতো কাছে আসে আনন্দ ;

খিলখিল করে হেসে ওঠে চারিদিক, তখন

আমি তরুণীর সফেদ রুমালের আড়ালে

নিজেকে লুকাতে লুকাতে তার নিঃশ্বাস নির্দয় ।

 

চামড়ার ঈমান তসবিহ টিপতে টিপতে হঠাৎ

বলে গেলো,ডানার আওয়াজে আজ

পাখিদের পালক পাথরের মতো শক্ত,

মাটির সর-পড়া ঠোঁটে অসংখ্য প্রশ্ন সমগ্র

অন্ধকারকে নাড়িয়ে তুলছে, অথচ আমার

হাতে ক্ষুধার্ত উত্তরের বাসনে শূন্যতা ।

 

কখনো বাতাস উলঙ্গ হয় আত্মার বিলাপে,

মাটি কখনো কাছে হেঁটে আসে কুয়াশাময়

দৃষ্টির আকুতিতে,

অকূলের বিনীত মুখে তাকালে ঈশ্বর

খুব বেশি দ্রুতগতি হয়ে কাছে আসেন ।

আজ আমি একখণ্ড উলঙ্গ বাতাসকে ঢেকে

দিতে হাতে কাফন নিয়ে দৌড়াচ্ছি

আর বাতাস তার দিক বদলাচ্ছে সর্বগ্রাসে ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন