দেবদাস কুন্ডু

অন্ধ প্রেমিক


গভীর শীতে ডুবে থাকে তোমার হৃদয়

তোমার শরীর থেকে উঠে আসে মৎস্যকন্যা

তোমার বুক চিরে মেঘেরা দেয় ডাক

তোমারই গলায় হারান বাঁশির সুর

তুমি হয়ে ওঠো রাতের অমলিন চাঁদ

তোমারই চোখের জমিতে শুয়ে থাকে জ্যোস্না

তোমারই শরীরে বয়ে যায় রুপসি নদী

আমি মাঝে মাঝে অবগাহন করি আকন্ঠ

কখনো উজানে সাঁতার কাটি তোমার বুকে

তুমি কখনো হাসনুহানা ফুল হয়ে ঝরে পড়ো উঠোনে।

সেই তীব্র  গন্ধে আমি ভ্রমন করি গভীর অরন্যে

তুমি কখনো আকাশ হয়ে জেগে থাকো হৃদয়ে 

আমি মেঘ হয়ে ভেসে বেড়াই দুই বাংলায় 

তুমি কখনো সখনো নূপুর হয়ে বেজে ওঠো

আমার ঘুমহীন রাত কাটে সুরের জলাশয়

কখনো তোমার চুল মেঘ হয়ে বৃষ্টি ঝরায়

আমার উদাসি তপ্ত হৃদয় অলিন্দে

তুমি কখনো হরিন হয়ে ছুটতে থাকো

আমি পথ হারাই অন্ধ প্রেমিকের মতো। 


 


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন